1. abkiller40@gmail.com : admin : Abir Ahmed
  2. ferozahmeed10@gmail.com : moderator1818 :
প্রকৃতির অপার সৌন্দর্য গজনী অবকাশ কেন্দ্র - Barta24TV.com
রাত ৩:৫৬, মঙ্গলবার, ১৪ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

প্রকৃতির অপার সৌন্দর্য গজনী অবকাশ কেন্দ্র

Reporter Name
  • Update Time : সোমবার, ফেব্রুয়ারি ৫, ২০২৪
  • 409 Time View

শেরপুর থেকেঃ মোঃ শাহজাহান, ঘুরে আসুন প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের লীলাভূমি গারো পাহাড় গজনী অবকাশ বিনোদন কেন্দ্র।এ গারো পাহাড়ের নয়নাভিরাম সৌন্দর্য উপভোগে দর্শনার্থীদের ক্ষেত্র তৈরি করেছে গজনী অবকাশ পর্যটন কেন্দ্র। এবার গজনী অবকাশে লেগেছে নতুনত্বের ছোয়া।১৯৯৩ সালে ভারতের মেঘালয়র সীমান্তঘেঁষা ঝিনাইগাতী উপজেলার কাংশা ইউনিয়নে ৯০ একর জায়গাজুড়ে গড়ে তোলা হয় গজনী অবকাশ বিনোদন কেন্দ্রটি। ধাপে ধাপে পর্যটন কেন্দ্রটিতে নির্মাণ করা হয় দৃষ্টিনন্দন মৎস্য কন্যা (জলপরী),ডাইনাসোরের প্রতিকৃতি, ড্রাগন, দন্ডায়মান জিরাফ,পদ্ম সিঁড়ি, লেক ভিউ পেন্টাগন,পাতালপুরী, হাতির প্রতিকৃতি, স্মৃতিসৌধ, গারো মা ভিলেজ, মুটুপাতলুর প্রতিকৃতি ওয়াচ টাওয়ার ইত্যাদি।সারি সারি বাহারি গাছের পাহাড়ের মাঝ দিয়ে আঁকাবাঁকা সড়ক,ছোট-বড় মাঝারি টিলা আর চোখ জুড়ানো সবুজের বিন্যাস।পাহাড়, বন ও দৃষ্টিনন্দন লেকের কারণে কেন্দ্রটি ভ্রমণপিপাসু ও প্রকৃতি-প্রেমীদের কাছে ক্রমেই সুপরিচিত হয়ে উঠেছে। পাহাড়ের বুক জুড়ে তৈরি হয়েছে সুদীর্ঘ ওয়াকওয়ে। পায়ে হেঁটে পাহাড়ের স্পর্শ নিয়ে লেকের পাড় ধরে হেঁটে যাওয়া যায় এক পাহাড় থেকে অন্য পাহাড়ে।লেকের ধারে তৈরি হয়েছে মিনি কফিশপ।

চিড়িয়াখানায় যুক্ত হয়েছে নিত্যনতুন বিভিন্ন প্রজাতির প্রাণী। নতুনত্বের ছোঁয়া লেগেছে গারো মা ভিলেজেও। মাশরুম ছাতার নিচে বসে বা পাখি আকৃতির বেঞ্চে বসে সহজেই উপভোগ করা যায় পাহাড়ের ঢালে আদিবাসী জনপদের জীবনযাত্রা। এখানে বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর স্থাপন করে অবকাশের বৈচিত্রে আনা হয়েছে নতুনত্বের ভিন্নতা। আগত দর্শনার্থীদের মুক্তিযুদ্ধ সম্পর্কে জানাতে জাদুঘরে রাখা হয়েছে বঙ্গবন্ধু-মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি বিজড়িত ইতিহাস ও স্থিরচিত্র। পাশেই রয়েছে আদিবাসী জাদুঘর। বিলুপ্তপ্রায় আদিবাসীদের জীবনমানের নানা ইতিহাস ও স্থিরচিত্র নজর কাড়ে পর্যটকদের।শিশুদের জন্য রয়েছে চুকুলুপি চিলড্রেনস পার্ক। এসময় গজনী অবকাশ কেন্দ্রের ইজারাদার মোঃ ফরিদ আহাম্মদ বলেন, ভ্রমণপিপাসুদের বিনোদনের জন্য প্রায় ৩৬ লাখ টাকা ব্যয়ে ঝুলন্ত ব্রীজ,ক্যাবলকার ও জিপ লাইনার রাইড নির্মাণ করা হয়েছে ১নং লেকের ওপর দিয়ে বসানো হয়েছে আকর্ষণীয় ক্যাবল কার কারটিতে উঠে পুরো পরিবার একসঙ্গে যাওয়া যাচ্ছে এক পাহাড় থেকে অন্য পাহাড়ে এছাড়াও ভ্রমনকারীদের জন্য উন্নত টয়লেট,বিশ্রামগার তৈরী করা হয়েছে।
অপরূপ প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের লীলাভূমি গজনী অবকাশ পর্যটন কেন্দ্রটি,আকর্ষণীয় করে তুলতে দৃষ্টিনন্দন ঝুলন্ত ব্রীজ,ক্যাবল কার ও জিপ লাইনিং উন্মুক্ত করে দেয়া হয়েছে।এখানে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর জন্য একটি কালচারাল সেন্টার ও পর্যটকদের রাত যাপনের জন্য একটি হোটেলও চালু করা হয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category